সিঁদ কেটে মোবাইল ফোনের সাথে নিয়ে যায় শিশুও!

 

আমোদ রিপোর্টার।।

কুমিল্লা তিতাসে বসতঘরের সিঁদ কেটে মোবাইল ফোনের সাথে শিশুও চুরি হয়েছে। ১৮ মাসের এক কন্যা শিশু রাইসা উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের মনাইরকান্দি গ্রামের প্রবাসী হালিম মিয়ার মেয়ে। তাকে উদ্ধার করেছে কুমিল্লা ডিবি,থানা পুলিশ ও জনপ্রতিনিধি। চুরি হওয়া শিশুটিকে উপজেলার দক্ষিণ বলরামপুর থেকে উদ্ধার করা হয়।এসময় বলরামপুর গ্রামের মোশারফ হোসেনের ছেলে কবির হোসেনকে আটক করে পুলিশ। শুক্রবার তিতাস থানা পুলিশ এই তথ্য নিশ্চিত করে।

পুলিশ ও ¯’ানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রবাসী হালিমের স্ত্রী জান্নাত আক্তার তার ছেলে ও মেয়ে রাইসাকে নিয়ে বাবার বাড়ি উলুকান্দিতে বসবাস করতেন। বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টায় প্রকৃতির ডাকে জান্নাত টয়লেটে যায়। বা”চার কান্নার শব্দ শুনে ঘরে ফিরে দেখে তার মেয়ে রাইসা এবং তার ব্যবহৃত দুটি মোবাইল ফোন নেই। দেখতে পান তার ঘরের কাঁচা ভিটিতে সিঁদ কাটা রয়েছে। অপহরণকারী চক্র জান্নাতের ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন থেকে তার ভাই আলমের মোবাইল ফোনে কল দেয়। বা”চা পেতে হলে ২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পুলিশকে জানালে বা”চাকে মেরে ফেলবে বলেও হুমকি দেয়। অপহরণকারীদের ধরার ফাঁদ পাতে পুলিশ। তাদের সাথে এক লাখ টাকা চুক্তি করে। প্রযুক্তির ব্যবহার করে পুলিশের সহযোগিতায় তিতাসের বলরামপুর এলাকায় শনাক্ত হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ¯’ানীয় জনগণ, ডিবি ও থানা পুলিশের সহায়তায় বলরামপুর গ্রাম থেকে কবিরের কাছ থেকে রাইসাসহ একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে।

মুরাদনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর আবিদুর রহমান জানান, তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের সমন্বয়ে শিশুটিকে আমরা জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছি। একজনকে আটক করেছি। এর সাথে যারা যারা জড়িত তাদের সবাইকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।