নবীনগরে সাড়ে চারশ’ পরিবারকে ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
বর্তমান সমাজে মানুষের মুক্তচিন্তার অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। এই মুক্তচিন্তার অভাব দূর করতে পাঠাগারের বিকল্প নেই। আবদুর রহিম স্মৃতি পাঠারের উদ্যোগে ঈদ খাদ্য মামগ্রী বিতরণ নি:সন্দেহেই একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। আমাদের সকলকে পাঠাগার আন্দোলনে অংশীদার হতে হবে, তবেই সমাজে মুক্তচিন্তা জাগ্রত হবে।
মঙ্গলবার (১১ মে) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার দরিদ্র ও অসহায় সাড়ে চারশ’ পরিবারের মাঝে ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান। নবীনগর উপজেলার বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের সুদীর্ঘ সময়ের চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সমাজসেবী আবদুর রহিম হুমায়ূনের স্মরণে জালশুকা গ্রামে প্রতিষ্ঠিত ‘আবদুর রহিম স্মৃতি পাঠাগার’র উদ্যোগে এসব ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, নবীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মনিরুজ্জামান মনির, নবীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল ছিদ্দিক ও বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি পীযুষ কান্তি আচার্য, সাধারণ সম্পাদক ও প্রয়াত আবদুর রহিম হুমায়ূনের সুযোগ্য পুত্র জাবেদ রহিম বিজন।ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের আহ্বায়ক মো. মনির হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নবীনগর সার্কেল) মকবুল হোসেন, নবীনগর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. ইকবাল হাসান, আবদুর রহিম স্মৃতি পাঠাগার সভাপতি তুহুরা বেগম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত, নবীনগর থানার ওসি আমিনুর রশিদ, নবীনগর প্রেস ক্লাব সভাপতি জালাল উদ্দিন মনির প্রমুখ।
পরে অতিথিবৃন্দ গ্রামের দরিদ্র ও অসহায় সাড়ে চারশ’ পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেন। এর আগে অনুষ্ঠান স্থলে পৌঁছালে অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বিশিষ্ট সমাজসেবী আমিনুল হক, মিজানুর রহমান, ফারুক আহমেদ, রেজাউল হক বুলু, আশরাফুল হক রিজেন, ইকরামুল হক তামিম, হাফিজুর রহমান মুহিন। আবদুর রহিম স্মৃতি পাঠাগারের পক্ষ থেকে পাঠাগারের সভাপতি তুহুরা বেগম আগত অতিথিদের শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে বই প্রদান করেন।